প্রতিমা ভাংচুরে রূপসার শিয়ালী গ্রাম পরিদর্শন করলেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার

Spread the love

রূপসা প্রতিনিধি: রূপসা উপজেলার ঘাটভোগ ইউনিয়নের শিয়ালী গ্রামে প্রতিমা ভাংচুর,দোকান ভাংচুর ও লুটের ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার রাজেশ কুমার রায়না। তিনি ঘটনাস্থলে পৌছালে ভূক্তভোগী, শত শত মহিলারা বিচারের আশায় তাকে ঘিরে ধরে কন্নায় ভেঙ্গে পড়ে এবং মন্দির ও দোকান ভাংচুরের বিবরণ তুলে ধরে। এসময় ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার ভুক্তভোগীদের উদ্দেশ্যে বলেন সকল দেশে দুষ্ট ও খারাপ লোক থাকবে তাদের মধ্যই জীবন জীবিকা চালিয়ে যেতে হবে। সেই দুষ্ট ও কুচক্রী লোকেরাই দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য ষড়যন্ত্র করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি বিনষ্ট করবে। বর্তমানে বাংলাদেশ সরকার অসাম্প্রদায়িক ভাবে দেশ পরিচালনা করছে। একারনে শিয়ালীতে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাগুলোর সঠিক বিচার আপনারা পাবেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার,খুলনা প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মল্লিক সুধাংশু,জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বিএমএ সালাম, যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক কামরুজ্জামান জামাল,এ্যাডঃ শাহ আলম, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা অসিত বরন বিশ্বাস,জামিল খান,শিউলী সরোয়ার,জেলা যুবলীগ নেতা এবিএম কামরুজ্জামান, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শক্তিপদ বসু,সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণ গোপাল সেন। অপরদিকে শিয়ালীতে হামলার ঘটনায় থানা পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে চাদপুর গ্রামের কাজী রফিকুল ইসলামের পুত্র ইমদাদ কাজী(৪৫) কে আটক করেছে। তাছাড়া ঘটনার দিন রাতে গ্রেফতার হওয়া আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। শিয়ালীতে ঘটনার তিনদিন অতিবাহিত হলেও এখনও ভুক্তভোগীদের মধ্য ভীতি ও আতংক বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে রূপসা থানার অফিসার ইনচার্জ সরদার মোশাররফ হোসেন জানান বাকী আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে এবং মামলাটি দ্রæত গতিতে তদন্তের কাজ চলছে।

     More News Of This Category

ফেসবুক