রূপসায় মেয়াদ শেষের মুহূর্তে অনিরাপদ শিশু খাদ্য বিক্রির অভিযোগ

রুপসা প্রতিনিধিঃ খুলনা রূপসায় গ্রাম গঞ্জের অলিগলি ও মোড়ে অবস্থিত ছোট ছোট মুদির দোকান গুলোতে প্রায় মেয়াদ উত্তীর্ণ ও অনিরাপদ শিশুখাদ্য বিক্রির অভিযোগ পাওয়া যায় আর এরকম ঘটনা ধারাবাহিকতায় গত ৫ জানুয়ারি খুলনার রূপসা উপজেলার নন্দনপুর গ্রাম তানভীর স্টোরের মালিক মোঃ আবুল বাশার মুন্সি অন্যের মেয়াদ শেষ হতে মাত্র এক দিন বাকি শিশুদের পছন্দের পানীয় অনিরাপদ খাবার জুস দেদারছে বিক্রি করছে করছে বলে এরকম অভিযোগ পাওয়া যায় । তিনি যে জুস বিক্রি করছেন যার গায়ে উৎপাদন তারিখ দেওয়া আছে ৭-০৪-২১ এবং মেয়াদ শেষ হওয়ার তারিখ দেওয়া আছে ৭-০১-২২ ।

ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়,
তানভীর স্টোর থেকে এক ক্রেতা 5 জানুয়ারি সকালে ব্যস্ততা মধ্য তাড়াহুড়া করে তার অসুস্থ বাচ্চার জন্য জুস ক্রয় করে বাসায় দিয়ে তিনি অফিসে চলে যান। কিছু সময় পর বাচ্চার মা তার শিশুটিকে জুস খাওয়ানোর আগে মেয়াদ দেখতে গিয়ে দেখেন জুস এর মেয়াদ মাত্র এক দিন বাকি । তা দেখে তিনি তানভীর স্টোরে ঐ পণ্য ফেরত দিতে গেলে দোকান মালিক আবুল বাশার তা ফেরত নিতে অস্বীকৃতি জানায় এবং জোর গলায় বলে আমি এই পণ্য‌ই বিক্রি করি, ইচ্ছে হলে নিবা না হলে নেই । আর আমি বিক্রিয়কৃত পণ্য ফেরত নি না। পরবর্তীতে বাচ্চার অভিভাবক ক্রয়কৃত জুসের মুখ মাটিতে ঢেলে তা নষ্ট করে ফেলেন ।

পরে বাচ্চার কান্না থামাতে পাশের দোকান থেকে জুস ক্রয় করে বাচ্চার কান্না থামায়।
নন্দনপুর এলাকার সচেতন মহলের দাবি , এলাকায় মাঝে মাঝে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে এসব মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য উদ্ধার করে দোকান মালিকদের জরিমানা করলে এসব মেয়াদ উত্তীর্ণ অনিরাপদ ও ক্ষতিকর পণ্য হতে বেঁচে স্বাস্থ্য সুরক্ষা করা সম্ভব।

     More News Of This Category

ফেসবুক