চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে হিন্দু সম্পত্তি দখলের অভিযোগে তীব্র প্রতিবাদ এবং বিক্ষোভ হলো ঢাকা প্রেসক্লাবের সামনে…..

নিলয় চক্রবর্তী। চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে হিন্দু সম্পত্তি দখলের অভিযোগে তীব্র প্রতিবাদ এবং বিক্ষোভ হলো ঢাকা প্রেসক্লাবের সামনে…..
চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বহুল আলোচিত এবং সমালোচিত বাংলাদেশের চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে এবার এক হিন্দু পরিবারের জমি ও স্থাপনা দখলের অভিযোগ উঠেছে। অন্তর জ্বালা’ সিনেমার শুটিংয়ের কথা বলে নিজ জেলা পিরোজপুরে জমি ও ক্লিনিক দখল করেন জায়েদ খান, এমন দাবি প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেওয়া ভুক্তভোগীদের। এই প্রতিবাদ সমাবেশে জায়েদ খানকে ভূমিদস্যু হিসেবে উল্লেখ করা হয়। পাশাপাশি জমি দখলে এ চিত্রনায়কের দুই ভাই ওবায়দুল হক পিন্টু ও শহীদুল হক মিন্টু জড়িত বলে দাবি করা হয়। ভুক্তভোগী পরিবারের একজন গীতা রানী জানিয়েছেন, ২০১৬ সালের ২১ মার্চ রাত ২টার সময় ৫ তলা ভবনের ৫ম তলায় কয়েকজন সঙ্গী নিয়ে জায়েদ খান গীতা রানী ও তার পরিবারের ওপর হামলা চালান। এ সময় তারা জোর করে টাকাপয়সা ও ক্লিনিকের অ্যাম্বুলেন্স লুট করে নিয়ে যান। এসব লুট করার আগে জায়েদ খান গীতা রানীদের মারধর করেন এবং তার স্বামীকে পিটিয়ে ঝিনাইদাহ জেলার রেললাইনের ওপর ফেলে রেখে চলে যান।

এ বিষয়ে ২০১৬ সালের ২৬ মার্চ একটি এজাহার করেছিলেন তিনি। এর পর থেকেই জায়েদ খান তার পাঁচতলা বাড়ির বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। বর্তমানে তারা ওই বাড়িতে থাকতে পারছেন না বলেও জানান গীতা রানী। তিনি আরো বলেন, “বর্তমানে আমরা ঢাকায় অবস্থান করছি। এ বিষয়ে গত ৬ জুন ২০১৮ সালে করা একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন। মামলা নম্বর ০৯, ১৮৫/১৮। আমরা ভুক্তভোগী পরিবার ভূমিদস্যু জায়েদ খান ও তার গংয়ের হাত থেকে রক্ষা পেতে সবার সহযোগিতা কামনা করছি।”
তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ এবং ক্ষোভ প্রকাশ করছি। অবিলম্বে চিত্রনায়কের মুখোশের আড়ালে বাস্তবিক অর্থে ভিলেন জায়েদ খানকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি সহ ভুক্তভোগী পরিবারগুলো যেন দ্রুত তাদের জমি ও স্থাপনা ফিরে পান, সেই ব্যাপারে প্রশাসনের জরুরি দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

     More News Of This Category

ফেসবুক