খুলনার তেরখাদায় স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ তেরখাদা শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

শেখ মাহাবুব আলম ইবাংলা প্রতিনিধিঃ খুলনার তেরখাদা উপজেলার আদর্শ শিক্ষা নিকেতন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনকে ঘিরে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। আজ রবিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) খুলনা জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে অংশগ্রহনকারী প্রার্থী ও অভিভাবকরা। ইতোপূর্বে উপজেলার বিভিন্ন বিদ্যালয় এমপিওভুক্তকরণের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ও শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) মহাপরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন প্রধান শিক্ষকরা।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ৩০ জানুয়ারি তেরখাদার সাচিয়াদহ ইউনিয়নের আদর্শ শিক্ষা নিকেতন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনের পূর্বনির্ধারিত তারিখ ছিল। করোনা পরিস্থিতির কারণে নির্বাচন স্থগিত হয়ে যায়। পরবর্তীতে ১ মার্চ বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন দিন ধার্য করে। যা গত ২৪ ফেব্রুয়ারি এলাকায় জনসাধারনের অবগতির জন্য মাইকিং করা হয়েছিল। প্রার্থীরা সে অনুযায়ী এলাকায় প্রচার-প্রচারণা করেন। কিন্তু উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম নির্বাচনে অংশ গ্রহণেচ্ছুকদের ও প্রধান শিক্ষককে না জানিয়ে ৩ মার্চ নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উদ্ধব কুমার মোহান্তকে ফোন করে অফিসে ডেকে তার হাতে চিঠি দেন। এলাকায় বিশৃঙ্খলার কথা চিন্তা করে প্রধান শিক্ষক ওই চিঠি নিতে অস্বীকার করলে তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়ার ভয় দেখান।

অভিযোগপত্রে আরও বলা হয়েছে, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম নির্বাচনের তারিখ পেছানোর ক্ষেত্রে অসৎ উদ্দেশ্য রয়েছে। বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির মেয়াদ ৫ মার্চ পর্যন্ত বলবৎ আছে। যদি ৩ মার্চ নির্বাচন হয় তাহলে (শুক্র ও শনি) দু’দিন সরকারি ছুটি থাকার কারণে এই মেয়াদের মধ্যে ম্যানেজিং কমিটি গঠন করা সম্ভব নয়। তবে পুনরায় সাবেক এডহক কমিটি বহাল থাকবে। এতে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা অনৈতিক স্বার্থ হাসিল হবে। সে কারণে কৌশলে এডহক কমিটি বহাল রেখে ৩ মার্চ নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করেছেন তিনি।

মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম তেরখাদায় যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠে। অনলাইনে এমপিও সংক্রান্ত কাজে ঘুষ গ্রহণ, শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগে দুর্নীতি এবং শিক্ষক-কর্মচারীদের অযথা হয়রানির অভিযোগে মাউশি মহাপরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা। প্রভাবশালীদের সাথে যোগসাজসে উপজেলার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে পছন্দের লোক বসাতে এমনটি করছেন বলেও অভিযোগ স্থানীয়দের। পূর্বনির্ধারিত ১ মার্চ তারিখইে আদর্শ শিক্ষা নিকেতন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন করার দাবিতে গতকাল রবিবার জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন নির্বাচনে অংশগ্রহনেচ্ছুক প্রার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, “আগামী ২৬, ২৭ ও ২৮ মার্চ খেলাধুলা; ১ তারিখে চার/পাঁচশ’ ছেলেমেয়ের নামের তালিকা জেলায় পাঠাতে হবে। সে কারণে ১ মার্চ অফিসের বাইরে থাকতে পারি না তো। তাহলে আমার খেলাধুরা ও সরকারি কর্মসূচি ব্যাহত হবে। তাদের অভিযোগ সঠিক না; নির্বাচনে আবার শুক্র-শনিবার আছে নাকি?”

অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবিদা সুলতানা। তিনি বলেন, “লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

     More News Of This Category

ফেসবুক