তাহিরপুরে ফসল রক্ষা বাঁধের উপর ওঠার অভিযোগে এক শিশুর ডান হাতের ৪টি আঙ্গুল কাঁচি দিয়ে কেটে দিয়েছে যুবলীগ নেতা

Spread the love

ইবাংলা নিজস্ব প্রতিধিধিঃ তাহিরপুরে ফসল রক্ষা বাঁধের উপর ওঠার অভিযোগে এক শিশুর ডান হাতের ৪টি আঙ্গুল কাঁচি দিয়ে কেটে দিয়েছে প্রকল্পের পিআইসি শ্রীপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের সাবেক যুবলীগ আহ্বায়ক অদুদ মিয়া। আহত শিশুটির নাম ইয়াহিন (৭)। সে তাহিরপুর উপজেলার শ্রীপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের সুলেমানপুর গ্রামের শাহানুর মিয়ার ছেলে এবং সুলেমানপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র।

শিশুটির পিতা শাহানুর মিয়া ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার বিকেলে ইয়াহিন গরুর ঘাস কাটার জন্য মহালিয়া হাওর পাড়ে ময়নাখালি বাঁধের উপর দিয়ে হেটে যাওয়ার সময় শিশুটির পা পিছলে পড়ে বাঁধের নীচে পড়ে যায়। এ সময় নির্মানাধীন বাঁধের ড্রেসিং করা কাজে ব্যাঘাত ঘটে। কাজে ব্যাঘাত ঘটায় অদুদ মিয়া ইয়াহিনের হাতে থাকা কাঁচিটি কেড়ে নিয়ে হাতের ৪টি আঙ্গুল কেটে দেয়।

পরে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে লোকজন সন্ধ্যায় চিকিৎসার জন্য তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। আঘাত গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে মহালিয়া হাওরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্মানাধীন ময়নাখালি ফসল রক্ষা বাঁধের ২৮ নং পিআইসি অদুদ মিয়া জানান, তিনি শিশু ইয়াহিনকে আঘাত করেননি। শিশুটির হাতের আঙ্গুল কে কাটলো তার কোন সুদুত্তর দিতে পারেননি।

তাহিরপুর থানার ওসি নন্দন কান্তি ধর জানান, শিশুর আঙ্গুল কাটার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে এবং অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

     More News Of This Category

ফেসবুক