বাগেরহাটের মোল্লাহাট থানার গাংনী গ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা, ও (অবসর প্রাপ্ত সেনা সদস্যের ) একমাত্র পুত্র নাঈম নামে এক সমাজসেবা অফিস সহকারীকে নৃশংস ভাবে হত্যা

Spread the love

ইবাংলা নিজস্ব প্রতিনিধি খুলনা বাগেরহাট মোল্লাহাট থানার গাংনী গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা,(অবসর প্রাপ্ত সেনা সদস্য)মোঃ আবুল হোসেন খান একমাত্র পুত্র মোঃ নাঈম খান গত ২৪/০৩/২০২২ ইং তারিখ রোজ বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত ০৮ সময় দুর্বৃত্তদের হাতে গাংনী গ্রামে মোঃ হীরানের বাড়িতে খুন হয়।। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন খানের তিন সন্তানের মধ্যে ছোট সন্তান মৃত নাঈম খান। মৃত নাঈম খান স্থানীয় মোল্লাহাট সমাজসেবা অধিদপ্তরে অফিস সহকারী হিসেবে কর্মরত ছিলেন। মৃত নাঈম খান মৃত্যুকালে ৪ বছরের একটি সূত্র সন্তান ও ০৮ মাসের এক কন্যা সন্তান ও তার স্ত্রী রেখে গেছেন।,২৫/০৩/২০২২ইং তারিখ মৃত নাঈম খানের লাশ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ময়না শেষে মোল্লাহাট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাবু সোমেন দাশ ও সঙ্গীয় ফোর্স তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন। এসময় বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। উক্ত খুনের তদন্ত বিভিন্ন প্রশাসনিক সংস্থা দ্বারা প্রক্রিয়াধীন। তবে এ ব্যাপারে মোল্লাহাট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাবু সৌমেন দাস কে জিজ্ঞাসা করলে বলেন ,
ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন



এখনো পর্যন্ত কোনো মামলা রুজু হয় নাই তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে। উক্ত খুনের ব্যাপারে তার পরিবারের সাথে কথা বলে জানা যায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিত ভাবে তাকে ওই বাড়িতে নিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়।মৃত নাঈমের পরিবারের স্বজনদের কাছে খুনের বিস্তারিত ও দোষীদের চিহ্নিত করন এর ব্যাপারে জানতে চাইলে বলেন উক্ত ব্যাপারে প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে তারা কথা বলবেন। উক্ত খুনের ব্যাপারে মোল্লাহাট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাবু সোমেন দাশ বলেন উক্ত লাশের সুরতহাল শেষে হত্যা মামলা হওয়ার পরে খুনিদের চিহ্নিত করণ ও দোষী ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করে করে জেলহাজতে প্রেরণ করা পুলিশের প্রথম কাজ হবে। অপরাধ নির্মূলে মোল্লাহাট থানা ও গাংনী পুলিশ ফাঁড়ি সহ অন্যান্য প্রশাসন গন অনেক তৎপর। উক্ত হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে স্থানীয় গাংনী গ্রামবাসী ও মৃতের আত্মীয়- স্বজনরা খুনিদের অবিলম্বে চিহ্নিত করন,ও গ্রেপ্তার সহ ফাঁসির দাবি করেন বাংলাদেশ প্রশাসনের কাছে। উপস্থিত ৩নং গাংনী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ শহীদুল ইসলাম শাহিদ বলেন মৃত নাঈমের একসময় বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ততা ছিল। সমাজসেবা অফিসে চাকরিরত অবস্থায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ এর সাথে সম্পৃক্ততা রয়েছে। ৩নং ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন আবুল বাশার শেখ বলেন রাজনৈতিক ভাবে সে আওয়ামী যুবলীগে মৃত নাঈমের সম্পৃক্ততা ছিল। তিনি আর বলেন এমন ন্যক্কারজনক নির্মমভাবে হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত অপরাধীদের চিহ্নিত করে কঠিন বিচার হওয়া উচিত, যাতে করে এমন নির্দয় হত্যাকাণ্ড ভবিষ্যতে আর না ঘটে।

     More News Of This Category

ফেসবুক