বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইবাংলা নিজস্ব প্রতিনিধিঃ বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সে সময় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র জননেতা এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন মহোদয়। তিনি বলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে এসেছেন বলেই দেশে গণতন্ত্র ফিরেছে। মৌলবাদ-জঙ্গিবাদ থেকে মুক্ত হয়েছে দেশ। দেশের সর্বক্ষেত্রে উন্নয়ন হয়েছে। বাংলাদেশ কখনো শ্রীলংকা হবে না, কারণ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনীতি সাবলম্বী হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধু মানুষের মুখের হাসি ফোটানোর যে স্বপ্ন দেখিছিলেন, সেই কাজটি বাস্তবায়ন করেছেন তাঁরই সুযোগ্যকন্যা শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার দুপুরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন ও বাংলাদেশের গণতন্ত্র’ শীর্ষক বিশেষ আলোচনা সভায় মূখ্য আলোচকের বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। রাবির শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে এই সভার আয়োজন করা হয়।
তিনি আরো বলেন পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের অনেক মিল রয়েছে। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দিনে বিমানবন্দের যেমন মানুষের ঢল নেমেছিল, তেমনি শেখ হাসিনার প্রত্যাবর্তনের দিনেও বিমানবন্দরে মানুষের ঢল নেমেছিল। শেখ হাসিনা দেশে ফেরার পর তাঁকে অনেক আন্দোলন-সংগ্রাম করতে হয়েছে। নানা চড়ায় উৎরায় পেরিয়ে ক্ষমতায় এসে তিনি মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ছেন।
রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বারবার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। সৃষ্টিকর্তা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাধ্যমেই বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন করবেন, তাই তাঁকে বেঁচে রেখেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে, পদ্মা সেতু হচ্ছে, মেট্রোরেল, বঙ্গবন্ধু টানেল সহ ৬ লেন, ৪ লেন সড়ক ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী গৃহহীনদের জমিসহ ঘর দিয়েছেন। সামাজিক সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে এনেছেন অনেক মানুষকে। আমরা দোয়া করি তিনি সুস্থ্য থেকে আগামীতেও এভাবেই মানুষের কল্যানে কাজ করে যেতে পারেন।
মেয়র আরো বলেন, আজকে বিএনপি গণতন্ত্র নিয়ে, ভোট নিয়ে নানা কথা বলছে। অথচ তাদের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ভোট নিয়ে তামাশা-প্রহসন করে গেছেন। গণভোট আয়োজন করে ভোট নিয়ে তামাশা করে গেছেন জিয়াউর রহমান। রাজাকারদের পৃষ্ঠপোষকতা করেছেন, মৌলবাদের উত্থান ঘটিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশ জাতীয় সাংবাদিক ফোরামের প্রচার সম্পাদক রাজশাহী মহানগর।

     More News Of This Category

ফেসবুক