বটিয়াঘাটায় ইজারাকৃত খাল লিচ গ্রহণ করে এলাকাবাসীর জন্য অবমুক্ত করলেন মহিলা মেম্বার রুমা আক্তার, সাবেক মহিলা মেম্বার কতৃক জবরদখলের পায়তারা

ইবাংলা নিজস্ব প্রতিনিধিঃ নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে নিজ নামে ইজারাকৃত খাল লিচ নিয়ে এলাকাবাসীর জন্য অবমুক্ত করে তার বহু দিনের স্বপ্ন পূরণের মধ্যে দিয়ে গণমানুষের প্রিয় হয়ে উঠেছেন খুলনা বটিয়াঘাটা উপজেলার ০৫ নং ভান্ডারকোট ইউনিয়নের (০৪,০৫ ও ০৬) নং ওয়ার্ডের তৃতীয় বারের মতো নির্বাচিত হওয়া সংরক্ষিত মহিলা আসনের ইউপি সদস্য মোছাঃ রুমা আক্তার।গত ২৭.০৫.২০২২ ইং তারিখ রোজ শুক্রবার সময় আনু:১২.১৫ মিনিটে হালিয়া কাটাখালী (বদ্ধ)খালটি এলাকাবাসী সকলকে সাথে নিয়ে অবমুক্ত করার সময় তিনি বলেন,০৫ নং ভান্ডারকোট ইউনিয়নের ঝিনাইখালী (০৭) নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত ইউপি সদস্য ও ঝিনাইখালী সিআইজি মৎস সমবায় সমিতির সভাপতি মোঃ মুরাদ মলঙ্গীর নামে থাকা ইজারাকৃত অত্র ইউনিয়নের হালিয়ার মৌজা নং ৬৬,দাগ নং-১৫২,৫৪৮,৪০৬,১৭২৫ আয়তন-৬.০২ একর মাত্র (বদ্ধ)কাটাখালী খালটি যৌথ লিচ চুক্তি নিয়ে এলাকাবাসীর জন্য অবমুক্ত করে নিজেকে গর্বিত মনে করছি।কিন্তু জনগণের এই ভালবাসা ও সুনাম কতদিন ধরে রাখতে পারবো সেটা জানিনা।কারণ কিছু কুচক্রী মহল দীর্ঘদিন ধরে এই খালটি যাতে অবমুক্ত না হয় সেজন্য অপতৎপরতা চালিয়েছে এখনো অবিরাম চালিয়ে যাচ্ছে।অর্থ উপার্জনে শুধুমাত্র নিজেদের স্বার্থ হাসিলে তারা এই স্বর্গের মতো এলাকাটিকে নরকে পরিণত করতে উঠে পড়ে লেগেছে।

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

অন্যের সম্পত্তি ক্ষমতার অপব্যবহার করে ভাড়াটে সন্ত্রাসী দ্বারা জোরপূর্বক দখল করে নিজের বলে জাহির করছে।এমনকি সম্পত্তি দখলে থাকা ব্যক্তির স্বাক্ষর জাল করে বিক্রি দেখিয়ে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে।অর্থ না বুঝে পেলে হুমকি দিয়ে মামলার ভয় দেখাচ্ছে।এসকল বিষয় যথাসম্ভব চেষ্টা করে যাচ্ছি অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়ে তাদের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত এবং অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে।সরজমিন সাক্ষাৎকারে হালিয়া শিয়ালডাঙ্গার মৃত জগীনন্দ্রনার্থ মহলদার এর পুত্র নারায়ণ মহলদার (৮০) বলেন,উক্ত খালটি ইতিপূর্বে সাবেক মহিলা মেম্বার তার ক্ষমতা বলে জোরপূর্বক ভাবে নিজের ইচ্ছে মতো ভোগ করে এসেছেন।আজকে খালটির বাঁধ উন্মুক্ত হওয়ায় খালের সাথে সম্পৃক্ত এলাকাবাসী ভীষণ আনন্দিত।একই এলাকার মৃত কওছার আলী শেখের পুত্র মোঃ জাকির হুসাইন শেখ(৩৪) বলেন, কিছু দিন আগে খালটি উন্মুক্ত করা হলেও সাবেক মহিলা মেম্বার নিজের বলে দাবি করে কোন এক অদৃশ্য শক্তির মাধ্যমে রাতে সন্ত্রাসী বাহিনীর মাধ্যমে খালের পুনরায় বাঁধ বেঁধে দেয় এবং রাতে লবণ পানি উঠানোর মধ্যে দিয়ে গণমানুষের কষ্টের ফসল বিনষ্ট করেছে।

আজকে খালটি উন্মুক্ত হওয়ায় এলাকাবাসী ফসল ও মাছ উৎপাদন করে এ অঞ্চলের ব্যাপক অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটবে বলে মনে করছি।হালিয়ার ধীরেন্দ্রনাথ মহলদারের পুত্র আশুতোষ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রতীশ কুমার মহলদার(৪০) বলেন,উক্ত খালটি অবমুক্ত হওয়ার আগে ছিল বদ্ধ একটা নিরব মৃত্যুর ফাঁদ।ভুক্তভোগী এলাকাবাসীর একান্ত প্রচেষ্টায় এখন অবমুক্ত হলো।আগে লবণ পানি উঠানোর জন্য যেখানে বিঘা প্রতি ৭/৮ মণ ধান হতো এখন মিষ্টি পানি দিয়ে আমরা এক মৌসুমে তিনটি ফসল উৎপাদন করতে পারব এবং বিঘা প্রতি ধান উৎপাদন হবে ২০ মণ অতএব ইরি এবং আমন মিলিয়ে ৪০ মণ ধান ঘরে তুলবে কৃষক তাছাড়া এখানে প্রচুর পরিমাণ তরমুজ বাঙ্গির চাষ হয়।এখানে লবণ পানি উঠিয়ে যে চিংড়ি মাছের চাষ হয় প্রতিবছরই তা ভাইরাসে মারা যায়। পক্ষান্তরে মিষ্টি পানিতে আমরা প্রচুর পরিমাণে সাদা মাছ ও গলদা চিংড়ি মাছ পেয়ে থাকি।ভুক্তভোগী এলাকাবাসীর দাবি,সরকার যেন আর কোন অপশক্তির মাধ্যমে জোর পূর্বক দখলদারদের ইজারা প্রদান না করে।তাহলে খেটে খাওয়া মানুষের আর কষ্টের সীমা থাকবে না।এ বিষয়ে ০৫ নং ভান্ডারকোট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ ওবায়দুল্লাহ শেখ ওবায়দুলের সাথে মুঠোফোনে বার বার কথা বলার চেষ্টা করলেও কোন সদুত্তর পাওয়া যায়নি।উক্ত ঘটনায় সত্যতা জানতে চাইলে ঝিনাইখালী সিআইজি মৎস সমবায় সমিতির সভাপতি ও(০৭) নং ইউপি সদস্য মোঃ মুরাদ মলঙ্গী বলেন,আমার নামে থাকা ইজারাকৃত হালিয়ার জলমহল কাটাখালী খালটি অত্র ইউনিয়নের একমাত্র মোছাঃ রুমা আক্তার (০৪,০৫,ও ০৬) নং ওয়ার্ড এর মহিলা ইউপি সদস্য কে ইজারা দিয়েছি।অন্য কোন ব্যক্তিকে ইজারা দেয় নাই।এক্ষেত্রে অন্য কোন ব্যক্তি আমার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে নিজের বলে দাবি করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেন।

     More News Of This Category

ফেসবুক