ঘূর্ণিঝড়ে উপকূলীয় অঞ্চল বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়’ খুলনায় আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবসে- মনিরুজ্জামান তালুকদার।

শেখ মাহাবুব আলম খুলনাঃ ‘দুর্যোগে আগাম সতর্কবার্তা, সবার জন্য কার্যব্যবস্থা’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে খুলনায় আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত হয়। দিবসটি উপলক্ষ্যে আজ বৃহস্পতিবার (১৩ অক্টোবর) সকালে খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদার। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জেলা প্রশাসক বলেন, বাংলাদেশ দুর্যোগ প্রবন অঞ্চলে অবস্থিত। দুর্যোগ মোকাবেলা করেই এদেশের মানুষকে বেঁচে থাকতে হবে। দুর্যোগ মোকাবেলায় আমাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। দুর্যোগের আগাম প্রস্তুতি যত বেশি নেয়া যাবে, ক্ষয়ক্ষতি তত কমিয়ে আনা সম্ভব হবে। এজন্য মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির বিকল্প নেই। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশ স্বাধীনের পরেই ১৯৭২ সালে দুর্যোগ ঝুঁকি হ্রাস কার্যক্রম শুরু করেন। তৎকালীন সময়ে প্রাকৃতি দুর্যোগে আক্রান্ত মানুষের আশ্রয়ের জন্য মুজিবকেল্লা তৈরি করা হয়। ঘূর্ণিঝড়ে উপকূলীয় অঞ্চল বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সরকার উপকূলীয় অঞ্চলসমূহে আশ্রয় কেন্দ্র নির্মাণ করেছে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ সাদিকুর রহমান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আছাদুজ্জামান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আলমগীর কবির, সরদার মাহাবুবার রহমান, গণপূর্ত বিভাগ-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী অমিত কুমার বিশ^াস, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আনিসুজ্জামান মাসুদ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আশরাফুল আলম, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর সহকারী পরিচালক মো: ফারুক হোসেন শিকদার, ওয়ার্ল্ড ভিশনের প্রজেক্ট ম্যানেজার মাহবুব রহমান প্রমুখ বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত জানান জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকতা রণজিৎ কুমার সরকার।
এর আগে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক এর নেতৃত্বে শহিদ হাদিস পার্ক থেকে এক বণাঢ্য র‌্যালি শুরু হয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ অংশ গ্রহণ করে।

     More News Of This Category

ফেসবুক