সাইদুল ইসলাম গোয়াইনঘাট সিলেট ভারতের উত্তর পূর্ব রাজ্য আসামের রাজধানী গৌহাটিতে দুদিন ব্যাপি নদী সম্মেলন শেষে সিলেটের তামাবিল সীমান্ত হয়ে দেশে ফিরলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন চৌধুরী।

গতকাল (২৯মে)বিকেল ৫টায় তামাবিল সীমান্ত দিয়ে তিনি বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। এসময় মন্ত্রীর সফর সঙ্গী হিসেবে ছিলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিচালক এটিএম রকিবুল হক, সহকারি পরিচালক মো. ইমদাদুল ইসলাম, ও সুর্বনা শামীম। তামাবিল সীমান্তে এসে পৌছালে এ সময় তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ মোবারক হোসেন ও গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিলুর রহমান। এছাড়া তামাবিল পাথর, চুনা পাথর ও কয়লা আমদানীকারক গ্রুপের সহ সভাপতি মো. জালাল উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার হোসেন ছেদু ও স্থানীয়


মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে পুর্ব জাফলং ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান লেবুসহ স্থানীয়
নেতৃবৃন্দ এবং ইমিগ্রেশন পুলিশের পক্ষে ইনচার্জ এসআই রুনু মিয়া ও এ এস আই সানাউল হক রমজান। তামাবিল সীমান্তে মন্ত্রী কে বিদায় জানান ভারতের দিলি-তে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার এইচ-ই মোহাম্মদ ইমরান,গৌহাটিতে নিযুক্ত উপ হাই কমিশনার ড. শাহ মো. তানভীর মনছুর। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেট ৪৮ বিজিবির সিও লে. কর্ণেল সাইফুল ইসলাম, সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) শাহরিয়ার বিন সালেহ, তামাবিল স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষের উপপরিচালক মাহফুজুল ইসলাম ভূইয়া, গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ কে এম নজরুল, জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম দস্তগীর আহমেদসহ আরো অনেকেই। এসময় ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত সংলগ্ন ঐতিহাসিক বধ্যভূমি পরিদর্শন করেন এবং ইমিগ্রেশন দপ্তরের স্থায়ী ভবন ও বধ্যভূমি সংরক্ষন ও সংস্কারের আশ্বাস দেন। তিনি তামাবিল স্থল বন্দরের ব্যবসা বানিজ্যের উন্নয়নসহ সার্বিক বিষয়ে ব্যবসায়ীদের সুযোগ সুবিধার ব্যাপারে খোঁজ খবর নেন। উল্লেখ্য আসামের গৌহাটিতে অনুষ্ঠিত নদী সম্মেলনে যোগ দিতে তিনি গত ২৭ মে ভারত সফরে যান।

তামাবিল সীমান্ত হয়ে দেশে ফিরলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন চৌধুরী।

ফেসবুক